আপনি অনেক টাকা ইনকাম করেন,কিন্তু আপনার বাড়িতে বরকত আসেনা। সবসময় কোনো না কোনো অশান্তি থাকেই।

বারিতে বরকত না আসার কয়েকটি কারণ রয়েছেঃ

১. আল্লাহর শুকরিয়া আদায় না করা।

এমনও ব্যক্তি রয়েছে যে সব কিছুই হাসিল করতে পেরেছে কিন্তু আল্লাহর শুকরিয়া আদায় করেনা। তাদের ঘরে বরকত আস্তে আস্তে শেষ হয়ে যায়।

২.পিতা মাতার নাফরমান করা
বাবা মায়ের সাথে যে ব্যক্তি নাফরমানি করবে,বাবা মায়ের খিদমত করবেনা। আল্লাহ সেই বাড়িতে বরকত শেষ করে দিবে। কারন আল্লাহ যদি তার পরে কারো সামনে সিজদা করার আদেশ করতেন তাহলে সে হতো বাবা মা।

৩.দাঁত দিয়ে নখ কাটা

আল্লাহর প্রিয় রাসূল (সাঃ) দাঁত দিয়ে নখ কাটতে সম্পূর্ণ নিষেধ করেছেন। যে বাড়িতে সদস্য রা দাঁত দিয়ে নখ কাটা হয় সেখানেই বরকত প্রবেশ করবেনা।

৪.হিংসা করা
কারো মনে হিংসা থাকলে,সে যদি ভাবে অপরজনের যা ধনদৌলত আছে সব যেনো চলে যায়,শুধু আমারই যেনো থাকে। তাহলে তার বাড়িতে বরকত আসবেনা।

৫.অপচয় খরচ করা।
যে মদ খেয়ে জুয়া খেলে টাকা নষ্ট করে,অযথা টাকা নষ্ট করে তার বাড়িতে কখনো বরকত আসেনা।

৬.সকাল পর্যন্ত ঘুমিয়ে থাকা।
যে ব্যক্তি সকালে ফজরের নামাযের জন্য না উঠে অনেক দেরী করে ঘুম থেকে উঠে তার ঘরে কখনো বরকত আসেনা।

৭.বাড়িতে মেহমান আসলে নারাজ হওয়া।

হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) বলেন বাড়িতে মেহমান আসলে অনেক আনন্দ অনুভব হয়। যাদের বাড়িতে মেহমান নেই তাদের কোনো আনন্দ নেই। তাই অতিথী আসলে যে নারাজ হয় তার বাড়িতে কখনো বরকত আসেনা।

৮.কথায় কথায় মিথ্যা বলা।
আজকালের ছেলে মেয়েরা কথায় কথায় মিথ্যা কসম কাটে। যারা এই স্বভাবের তাদের বাড়িতে কখনো বরকত আসেনা।